Home লাকী রজব • আলো ছায়া : পর্ব- ১৩

আলো ছায়া : পর্ব- ১৩

13962641_1064354836953570_4219061878557016253_n

আমার পাশে লিমা তার পাশে স্বপ্না বসে। লিমা বলল,
-এই আপনি আমার পাশে বসে আছেন আপনার লজ্জা করছে না?
-তোমার যদি না করে থাকে তাহলে আমারও করছে না।
সপ্না বলল,
-হু, আবার লজ্জা, আগামী শুক্রবারে যখন এক ঘরে এক বিছানায় রাত কাটাবেন তখন আপনাদের লজ্জা কোথায় যাবে?
বলে সে লিমাকে ধাক্কা দিয়ে আমার গায়ের উপর ফেলে দিল। সে অনেকটা সামলে নিলেও আলোত ভাবে আমার গায়ের উপর এসে পড়ল। লিমা ভীষণ লজ্জা পেয়ে উঠে গিয়ে সপ্নাকে বলল,
-এই শয়তান, তুই কি যে করিস, তোর কমন সেন্স নেই। যাতো তুই এখান থেকে।
-হু, আমাকে তেড়ে দিয়ে আমার হবু দুলাভাইকে নিয়ে মনের সুখে গল্প করো, তাহলে বেশ হবে।
আমার দিকে তাকিয়ে বলল,
-কি দুলাভাই ঠিক বলিনি?
-অবশ্যই।
-তাহলে আমি এই যে গেলাম, আর ডিস্টাপ করতে আসবো না।
বলে সে হাসতে হাসতে সেখান থেকে চলে গেল। সপ্না চলে গেলে লিমা আমার খুব নিকটে এসে আমার গা ঘেষে বসল। অনেকক্ষণ আমার দিকে অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইল। আমিও তাকিয়ে রইলাম। তারপর আমার হাতটি টেনে নিয়ে অনেকক্ষণ বুকে চেপে ধরে রাখল। আমার হাতটি খালি খালি ফিরে আসল না। একটি রক্ত লাল গোলাপ আমার হাতের মধ্যে দিয়ে বলল,
-আই লাভ ইউ।
আমিও অস্ফুট স্বরে বললাম,
-আই লাভ ইউ মাই ডিয়ার বিলাভড।
তারপর তার পুষ্প কোমল হাতটি রক্ত গোলাপ সহ চুমু খাওয়ার জন্য মুখের কাছে টেনে আনলাম। এমন সময় মসজিদ থেকে মোয়াজ্জেম মাইক দিয়ে এক ঈশ্বরের উপাসনা করার জন্য আহ্বান করতে লাগলেন। মাইকের কর্কশ শব্দ সহ্য করতে না পেরে স্বপ্নদেবী, নিদ্রাদেবী কোমলমতি দুই বোন আমাকে বাঁশের মাচায় ফেলে রেখে চলে গেলেন। ঘুমের ঘোরে লিমা লিমা বলে পাশে হাতড়াতে লাগলাম। শরিফের গায়ে হাত লাগতে সে নড়ে উঠল। তখন আমি বাস্তবতায় ফিরে আসলাম। স্বপ্নের কথা মনে হতেই মোয়াজ্জেমটার উপর খুব রাগ হল। আর ভাবতে লাগলাম, স্বপ্নার বর্ণিত সেই শুক্রবার কবে আসবে যেদিন লিমা আমার হয়ে হাসবে।

পর্ব- ১৪

Author:luckyrazob

Leave a Reply